হে স্বাধীনতা

কবি: হরেকৃষ্ণ দে

হে দেশমাতৃকা!
সাম্য, মৈত্রী, একতা ও প্রগতি—
এই চার সন্তানের দেয়ালা ঘিরে
দেখেছো জননীর অনুভূতি,
স্বাধীনতার কোন এক আঁতুড় ঘরে।
আজ তুমি রিক্ত, অনাবৃত।
সন্তানেরা আজ স্বাধীনতার আবছা অন্ধকারে লুটোপুটি খাচ্ছে রাজনীতির বিষাক্ত স্বার্থের কালিমায়…

হে স্বাধীনতা!
তুমি ফিরে এসো দেশমাতৃকার
অন্তরের মাঠ, ঘাট ও প্রান্তরে।
এসো ফিরে বাঁচার স্বাধীন অঙ্গীকার নিয়ে।

হে স্বাধীনতা!
তোমাকে পেতে চাই রাজছত্রের ন্যায় পরায়ণতার একান্ত আলিঙ্গনে।
না হয় দেশাত্মবোধে আরও ঝরুক তরুণের তাজা খুন।
ফিরে এসো দিন বদলের নতুন আবেশে,
ধূলিসাৎ হোক পরাধীনতার ইমারৎ।

হে স্বাধীনতা!
আজ দ্বেষ-হিংসার নিপাত ঘটাও-
মানবের অন্তরে ও বাহিরে।
বাংলা মায়ের দামাল ছেলের বীরত্ব জেগে উঠুক সকলের মন ও মননে।
আবার নতুন সূর্যের আভায় উজ্জীবিত হোক তরুণের দল।
ফুটে উঠুক সন্তানের কন্ঠে ভালোবাসার সুর, দেশমাতৃকা সবল হোক শান্তির লালিত পরশে।।


ছবি: কুন্তল


লেখকের কথা: হরেকৃষ্ণ দে
১৯৭২ সালের ৬ জুলাই বাঁকুড়া জেলার পিড়রাবনী গ্রামে জন্ম। লেখনীতে আনকোরা এক শব্দ শ্রমিক। পেশায় প্রাথমিক শিক্ষক ৷ সমান্য কবিতা চর্চার অবকাশে উত্তরের সংবাদ, মানভূম সংবাদ, তথ্যকেন্দ্র পত্রিকা ও লিটল ম্যাগাজিন, ওয়েব ম্যাগাজিনে প্রকাশ পেয়েছে কিছু লেখা। বর্তমানে একান্নবর্তী সাহিত্য পত্রিকার সম্পাদনার সাথে যুক্ত। প্রকাশিত কবিতা গ্রন্থ- “হৃদয় অরণ্যে এক উন্মাদ”, “পিটুলি গাছের ছায়া” এবং “উড়ো মন মনশহরের খামে”৷

শেয়ার করে বন্ধুদেরও পড়ার সুযোগ করে দিন
  •  
  •  
  •  
  •  

One Comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।