সম্পর্ক : উচ্চ মাধ্যমিক ও জীবন

লেখক : অয়ন মৈত্র

বিখ্যাত আমেরিকান লেখিকা, হেলেন কেলারের একটি স্মরণীয় উক্তি আছে- “ আমি অনেক কিছু পারি না, তবে কিছু তো পারিই, আর যেটা পারি সেই কাজে আমার
ব্যর্থ হওয়া চলবেই না।” তোমরা যারা উচ্চ মাধ্যমিক উত্তীর্ণ হয়ে গেলে, …

গৃহসজ্জায় খাবার ঘর সঠিকভাবে সাজানোর গুরুত্ব

লেখক : বেলি আকন (বেলি শিমু)

গৃহসজ্জার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো গৃহের ডাইনিং স্পেস।
আপনার খাবার ঘরের স্বচ্ছ আলোকিত পরিবেশ মুহূর্তেই আপনার মনে এনে দিতে পারে স্বর্গীয় অনুভূতি।
খাবার ঘরটি যদি অন্ধকার হয় কিংবা অতিরিক্ত জিনিসে সাটাসাটি অবস্থা হয় তাহলে …

বৌ পুতুল

লেখক : মানব মন্ডল

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বারুইপুরের শিখরবালি গ্রাম, বিখ্যাত মৃৎশিল্পী মহিতপালের বাড়ি।কথায় বলে “মাটি টাকা, টাকা মাটি” কিন্তু মৃৎশিল্প আজ মুল্য পায় না। বারুইপুর, কাছে শাসন নাম শুনেছেন। সেখানের কাছে , শিখরবালি, পালপাড়া আমাদের গন্তব্য। পথে বহু বাড়ি …

পতিতাবৃত্তির উৎস সন্ধানে – শেষ পর্ব

প্রথম পর্ব

বৃটিশ আমলের পরিসংখ্যান দেখলে বোঝা যাবে কি অবস্থা ছিল ঐ সময়। “১৮৫৩ তে কলকাতা শহরে ৪০৪৯ টি বেশ্যাগৃহ ছিল যাতে বাস করছিলেন ১২,৪১৯ জন যৌনকর্মী। ১৮৬৭ তে ছিল ৩০,০০০ জন। ১৯১১ সালের আদশুমারি অনুযায়ী ১৪২৭১ জন। ১৯২১ সালের …

পতিতাবৃত্তির উৎস সন্ধানে – প্রথম পর্ব

লেখক : রানা চক্রবর্তী

হাজার বছরের এক পুরাতন ব্যবসার নাম পতিতাবৃত্তি। লোকমুখে যার আরো অনেক বিচিত্র নাম আছে – গণিকাবৃত্তি, বেশ্যাবৃত্তি, দেহব্যবসা ইত্যাদি। বিচিত্র এই দোকানীরাই আমাদের সমাজে পতিতা, গণিকা, বেশ্যা, রক্ষিতা নানাভাবে পরিগণিত হয়। যে প্রতিষ্ঠানে তারা বিক্রি করে

কোথায় গেল নেতাজির তৈরি করা ব্যাংক

লেখক : রানা চক্রবর্তী

ব্যাংক গড়েছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র! কোথায় গেল সেই ব্যাংক আজ?

ব্রিটিশদের হাত থেকে পরাধীন ভারতকে মুক্ত করতে শুধু জাতীয় আন্দোলনই করেননি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু। তিনি গড়ে তুলেছিলেন ব্যাংকও। সেই ব্যাংকের নাম রেখেছিলেন আজাদ হিন্দ ব্যাংক। জাপানের সহায়তায় …

সম্পর্ক : ন্যাশনাল হাইওয়ের সাথে মানুষের

লেখক : অয়ন মৈত্র

পাড়ার কানাগলি।কানাগলি যেমন হয় আর কি।পিচ উঠে এধার ওধার গর্ত। সাথে কুকুরের ময়লা,এঁটো ভর্তি পলিথিন প্যাকেট, আর খারাপ হয়ে যাওয়া একটা টিউবওয়েল নর্দমার ভুরু ঘেঁষে। এখন ঘটনা হল এই গলি দেখেই প্রতিদিন ঘুমোতে যেতিস তুই। এই …

ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা – জানা অজানা তথ্য (শেষ পর্ব)

ভাওয়াল মামলা: ১৯২৬ সালের ৮ ডিসেম্বর সন্ন্যাসী বোর্ড অব রেভিনিউর কাছে দাবি করেন, তার পরিচয় তদন্ত করার জন্য। কিন্তু বোর্ড সে দাবি অগ্রাহ্য করে। ১৯২৯ সালে সন্ন্যাসী ঢাকায় ফিরে আসেন এবং ১৯৩০ সালের ২৪ এপ্রিল নিজেকে মৃত রাজা রমেন্দ্র নারায়ণ …

ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা – জানা অজানা তথ্য (দ্বিতীয় পর্ব)

ভাওয়াল রাজকুমার এবং রাজকুমারীদের জন্ম ইতিহাস রাজা রাজেন্দ্র নারায়ণ রায় চৌধুরী প্রাপ্ত বয়সে বিয়ে করেছিলেন বরিশাল জেলার বানারিপাড়ার জমিদার কন্যা রাণী বিলাসমণি দেবীকে। বিবাহিত জীবনে স্ত্রী বিলাসমণি দেবীর গর্ভে সর্বমোট তিন পুত্র ও তিন কন্যা জন্ম গ্রহণ করেন। প্রথম …

ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা – জানা অজানা তথ্য (প্রথম পর্ব)

লেখক : রানা চক্রবর্তী

অধুনা বাংলাদেশের ভাওয়াল পরগনার (বর্তমানের গাজীপুর জেলা) মেজো কুমার রাজা রমেন্দ্র নারায়ণ রায় চৌধুরি কে ঘিরে যে চাঞ্চল্যকর মামলাটি দীর্ঘদিন ধরে চলেছিল, সেটাই মূলত ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা নামে পরিচিত। যা শুরু হয়েছিল ১৯৩০ সালে এবং শেষ

সম্পর্ক : দাদু ঠাকুমার সাথে নাতি নাতনির

লেখক – অয়ন মৈত্র

দাদু-ঠাকুমার সাথে নাতি নাতনির সম্পর্কটা, শীতের দুপুরে মাছরাঙা রোদের মত অনেকটা। প্রথাগত তীব্রতা নেই। নেই নিয়মমাফিক উষ্ণতার ওঠা-নামা। কিন্তু তবুও ভেতর ভেতর কেমন যেন এক পৃথিবী গভীরতা তৈরি হয় রোজ একটু একটু করে। এ রোদ, কপালে …

আশা

লেখক : এরর সেভেন্টিফাইভ

আচ্ছা! মানুষ আশাহত হয় কেন? এত আশাই বা করে কেন অন্যের কাছ থেকে কিংবা মানুষ কেন অন্য একজন নৃকে কেনই বা মিথ্যা আশ্বাস দেয়? এত প্রশ্নের বেড়াজালে তৈরী হওয়া ধুম্রজালের মধ্যে দ্য শশাঙ্ক রিডেম্পশন সিনেমার একটি …

ভয় প্রসঙ্গে

লেখক : রতন চক্রবর্তী

[আমার খুব সীমিত পাভলভ, ফ্রয়েড ও এঙ্গেলস পড়া থেকে এবং আমাদের কিছু আগের ভার্জিনিয়ার ফলিত মনস্তাত্ত্বিক গবেষক – প্রধান অধ্যাপক (এই মুহূর্তে নাম মনে নেই) এর মাস ট্রমা এবং মাস হিস্টিরিয়া বিষয়ে একটা গুরুত্বপূর্ণ নিবন্ধ (পেপার)

Back to Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।

ওয়েবজিন এর জন্য লেখা আহ্বান - নিয়ম মেনে অপ্রকাশিত লেখা পাঠান

লেখালিখি ওয়েবজিন লেখা আহ্বান