আয়নায় নিজেকে দেখা

লেখক : এন. হক

সত্য চিরদিনই প্রকাশ্য, আর মিথ্যে অহেতুক লুকানো আয়না, যা বের করলেই চেহারাটা দেখা যায় ।আচ্ছা তোমরা বলতো ফেসবুকের নামটা “ফেকবুক” হলেই ভালো হতো কিনা? আমরা কজনায় জীবনের সত্যি সত্যি ঘটনাগুলি পোস্ট করি বা তুলে ধরি? শুধুই …

কথার ঝুলি

লেখক : বিপ্লব চন্দ্র দত্ত

প্রবচন হল কবি,সাহিত্যিক বা প্রজ্ঞাবান ব্যক্তির সৃষ্টি। প্রবাদের কোন লিখিত ভিত্তি নেই। প্রবাদকে বলা হয় লোকসমাজের অভিজ্ঞতার নির্যাস। একক কোন ব্যক্তি এর রচয়িতা হিসেবে দাবি করতে পারে না। অন্যদিকে প্রবচন ব্যক্তিগত প্রতিভার দ্বারা সৃষ্ট বাক্য …

মুদ্রাগুন

লেখক : বিপ্লব চন্দ্র দত্ত

একটা ছোট গল্প বলে শুরু যাক-

রহমান সাহেবের মুদ্রাদোষ কথায় কথায় ’আপনার…আপনার’ শব্দটি ব্যবহার করা। জামিল সাহেব এ পাড়ায় নতুন ভাড়াটে এসেছেন। তিনি রহমান সাহেবের মুদ্রাদোষের ব্যাপারটি জানতেন না। একদিন সকাল-বেলায় পাড়ার রাস্তায় দু’জনের দেখা। …

সিনেমাপ্রেমীর সাক্ষাতকার

লেখক : বিপ্লব চন্দ্র দত্ত

* আপনি কোথা থেকে বলছেন?-“আমি জেল থেকে বলছি”।
*  মানে, আপনার বাসস্থান?-“কারাগার”।
* সিডিউল পাওয়া যাবে?-“কাল সকালে”।
* আপনার নাম?-“মাই নেম ইজ সুলতান”।
* আপনি কোথাকার সুলতান বা রাজা?-আমি “রাজপথের বাদশাহ”। আবার বলতে পারেন – …

বিজ্ঞাপন-জ্ঞাপন

লেখক : বিপ্লব চন্দ্র দত্ত

কথায় আছে- প্রচারেই প্রসার। পণ্যের ব্যাপক প্রচার না হলে সেটার কাটতি কম হয়। তাই পণ্যের বিজ্ঞাপন খুবই জরুরী। বিজ্ঞাপন দিয়ে পণ্যের প্রচার করতে গিয়ে এর মালিক-পরিচালকগন এমন মরিয়া হয়ে ওঠেন যে, প্রসারের জন্য মানুষকে প্রেসার …

দাঁত দিয়ে যায় চেনা

লেখক : দীপালী ভট্টাচার্য (Dipali Bhattacharjee)

কাল থেকে কাজের মেয়েটিকে ফোন করছি, ফোন সে ধরলে তো! আজ সক্কাল সক্কাল ফোন করলাম তাও ধরে না! আজ অন্নপূর্ণা পুজো। ঘরের পুজো সেরে মন্দিরে যাব পুজো দিতে!

সকাল আটটায় সে এলো। “কিরে কাল থেকে ফোন …

৯০ দশকের বিলুপ্তি

লেখক : ইমু

৯০ দশকের দিনগুলো কতো ভালো ছিলো তাই না? হ্যাঁ ভালো ছিলো খুব ভালো ছিলো।যুগের পালাবদলে সে দিনগুলো হারিয়ে গেছে। সমাজ থেকে বিলুপ্ত হয়ে গেছে অনেক প্রথা,রীতিনীতি, সংস্কৃতি। এখন তো আধুনিক যুগ,ওসব ৯০ দশকের কথা ভাবার সময় নেই …

খিস্তির বিপাকে

লেখক : ড: অভীক সিংহ

“ধুর বাঁ*, এটা চা হয়েছে ? শালা আমি সকালে মুতলেও এর থেকে ভাল স্বাদ হয় ।” আমি চায়ের কাপটার দিকে তাকিয়ে মৃদুগলায় বলে উঠলাম ।
“ছি ছি ছি, কি ভাষা”, আমার পাশ থেকে সহ-অধ্যাপক ফিসফিসিয়ে

প্রণয়কথা

লেখক : স্বপন নাগ

 

প্রণয় আমাদের বন্ধু। প্রণয় আমাদের মুখিয়া। প্রণয় আমাদের গর্ব। অগাধ ভরসার নাম প্রণয় সেনগুপ্ত। এহেন প্রণয়ের কিন্তু নিন্দুকও কম নেই। ওকে সহ্য করতে পারে না এমন লোকও অনেক।

আজ শুধু প্রণয়ের গল্পই হবে। তার আগে ওর …

যৌথ পরিবারের ইতিকথা – ৩

লেখক : দেবাশিস চৌধুরী

আমার তখন ছেলেবেলা। যৌথ পরিবার আমাদের। জেঠতুতো, খুড়তুতো ভাই-বোনেরা মিলে বাড়ির বৈঠকখানার ঘরে একসাথে পড়তাম। আমাদের পড়াতেন ছোটপিসী। তাঁর তখনও বিয়ে হয়নি। পড়ার সাথে সাথে পিসীর চোখের আড়ালে দুষ্টুমিও চলত। আমার এক খুড়তুতো বোন পড়ার সময়

যৌথ পরিবারের ইতিকথা – ২

লেখক : দেবাশিস চৌধুরী

জন্ম থেকেই যৌথ পরিবারে মানুষ আমি। সেটা ১৯৭০ দশকের একেবারে গোড়ার দিক। আমাদের পরিবারের মোট সদস্য সংখ্যা তখন ২০। ছোটবেলাতে সব থেকে মজা লাগত রাতের খাওয়ার সময়। আগে সব বাচ্চাদের তাদের মায়েরা খাইয়ে দিত। এরপর খেতে

যৌথ পরিবারের ইতিকথা – ১

লেখক : দেবাশিস চৌধুরী

১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাস। আমার তখন সাত বছর বয়স। বাংলাদেশ গঠনকে কেন্দ্র করে ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ তখন সবে লেগেছে। সারা ভারত মহাদ্বীপ জুড়ে উত্তেজনা। বয়স্কদের আলোচনায় তখন একমাত্র বিষয় বস্তু ছিল এটি।

তখন যুদ্ধের

গুরু সের তো চেলা সওয়া সের

লেখক : দেবাশিস চৌধুরী

বিহারের মোকামা ঘাট। আকারে বেশ বড়। সামনেই বয়ে চলেছে গঙ্গা নদী। গঙ্গা এখানে বেশ চওড়া। পারাপারের জন্য আগে নৌকাই ছিল একমাত্র মাধ্যম। তখন ইংরেজদের শাসনকাল। সেই সময় সারা ইউরোপে শিল্প বিপ্লব ছড়িয়ে পড়ে। তার ছোঁয়া ভারতবর্ষেও …

Back to Top
error: লেখা নয়, লিঙ্কটি কপি করে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।