মেঘচিল

কবি: ময়ূখ  হালদার

উড়ন্ত মেঘচিল
আয়নায় তিন-জ পেরেকের দৃষ্টি
ভুরুর ডালে বসে একটা দাঁড়কাক
সকাল থেকে ডেকেই চলেছে
কানে কানে নালিশ জানিয়েছিল যে মেয়েটা তার শরীর মোমবাতির মতো গলে পড়ছে আমার ডান গাল বেয়ে
আর এখন আমার ঠোঁটের ওপর সেই কাঙ্ক্ষিত জবাফুল
সাত আঙুলে বাজাচ্ছি ভায়োলিন
দূরে নীলরঙের ওপার থেকে নেমে আসছে একটা সবুজ হাতি
যার পা-গুলো ক্রমশ সরু হতে হতে দড়ির শেকল
নোঙর করেছে মাটিতে
ডানচোখে ঘুম
এ পর্যন্ত দেখা দৃশ্যগুলো আমি দেখছিলাম বাঁ-দিকের চোখে আর আমার পাঁজর ভেঙে একটা বাচ্চা এইমাত্র ছুটে গেল নদীর কাছে
তখনও নদীর বুকে আঁকা ছিল মাতৃরেখা
তারপর অন্ধকার


লেখক পরিচিতি : ময়ূখ হালদার
জন্ম — অক্টোবর, ১৯৮২
বেড়ে ওঠা এবং পড়াশোনা — রানাঘাট, নদিয়া।
পেশা — পৌরকর্মী, রানাঘাট পৌরসভা।
নেশা — সাহিত্য, থিয়েটার।
বর্তমানে পেশাদার নাট্যাভিনেতা।
কাব্যগ্রন্থ — মহাশূন্যের ক্লাসরুম (জুলাই, ২০১৯)

শেয়ার করে বন্ধুদেরও পড়ার সুযোগ করে দিন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।